সোমবার,

২২ জুলাই ২০২৪

|

শ্রাবণ ৬ ১৪৩১

XFilesBd

শিরোনাম

হত্যাকান্ড, লুটপাট ও সন্ত্রাসী কর্মকান্ডের বিচার হবে নিজেদের রাজাকার বলতে তাদের লজ্জাও করে না : প্রধানমন্ত্রী সাবেক আইজিপি বেনজীরের সম্পদ ক্রোকের নির্দেশ আদালতের হবিগঞ্জের কার ও ট্রাকের সংঘর্ষে নারীসহ নিহত ৫ যুদ্ধ ব্যয়ের অর্থ জলবায়ুর প্রভাব মোকাবেলায় ব্যবহার হলে বিশ্ব রক্ষা পেত: প্রধানমন্ত্রী বিএনপির বিরুদ্ধে কোনো রাজনৈতিক মামলা নেই: প্রধানমন্ত্রী প্রাণি ও মৎস্যসম্পদ উন্নয়নে বেসরকারি খাতকে এগিয়ে আসার আহ্বান প্রধানমন্ত্রীর বিএনপি নেতারা সন্ত্রাসীদের সুরক্ষা দেওয়ার অপচেষ্টা করছে : ওবায়দুল

বিদেশে আটক ভিক্ষুকদের ৯০ শতাংশই পাকিস্তানি বংশোদ্ভূত

নিজস্ব প্রতিবেদক

প্রকাশিত: ১১:০৬, ৩০ সেপ্টেম্বর ২০২৩

বিদেশে আটক ভিক্ষুকদের ৯০ শতাংশই পাকিস্তানি বংশোদ্ভূত

পাকিস্তানের প্রবাসী ও মানবসম্পদ উন্নয়ন মন্ত্রণালয়ের সচিব জুলফিকার হায়দার বলেছেন, বিদেশে আটক ভিক্ষুকদের ৯০ শতাংশই পাকিস্তানি বংশোদ্ভূত। এ ছাড়া সৌদি আরবের মসজিদুল হারামের মতো পবিত্র স্থানগুলোতে আটক পকেটমারদের মধ্যে উল্লেখযোগ্য সংখ্যক পাকিস্তানি রয়েছেন।

গত বুধবার পাকিস্তানের পার্লামেন্টের উচ্চকক্ষ সিনেটের স্ট্যান্ডিং কমিটিকে এ তথ্য জানিয়েছেন জুলফিকার হায়দার। সিনেট প্যানেলে পাকিস্তান থেকে বিদেশে যাওয়া দক্ষ–অদক্ষ শ্রমিকদের নিয়ে আলোচনার সময় বিষয়টি নিয়ে কথা বলেন তিনি।

জুলফিকার হায়দার বলেন, পাকিস্তান থেকে বিদেশে যাওয়া ভিক্ষুকের সংখ্যা বাড়ছে। এই ভিক্ষুকদের অনেকে ওমরাহ পালনের উদ্দেশ্যে সৌদি আরব এবং ভ্রমণের ভিসা লাগিয়ে ইরান, ইরাকসহ মধ্যপ্রাচ্যের অন্যান্য দেশে যাচ্ছেন। সিনেটে তিনি আরও বলেন, এই ভিক্ষুকদের জন্য নতুন গন্তব্য হয়ে উঠেছে জাপান।

দক্ষ জনশক্তি রপ্তানিতে অতীতে পাকিস্তানের ভূমিকার কথা উল্লেখ করে সচিব জুলফিকার হায়দার আশা প্রকাশ করে বলেন, পেশাদাররা যখন বিদেশে যাবেন, তখন পাকিস্তানে রেমিট্যান্সের (প্রবাসী আয়) পরিমাণ বেড়ে যাবে। তিনি আরও বলেন, অদক্ষ ব্যক্তিদের চেয়ে সৌদি আরব এখন দক্ষ শ্রমিক পছন্দ করে।  

সিনেটে আলোচনায় প্রবাসী পাকিস্তানি শ্রমিকদের দক্ষতা এবং বিদেশি নিয়োগদাতাদের কাছে তাঁদের বিশ্বস্ততা নিয়ে উদ্বেগ প্রকাশ করেন জুলফিকার হায়দার। এদিক দিয়ে বাংলাদেশ ও ভারতের শ্রমিকেরা পাকিস্তানের চেয়ে এগিয়ে আছেন বলে স্বীকার করেন তিনি।

এ সময় সিনেটর রানা মেহমুদুল হাসান জাপানে বিভিন্ন দেশ থেকে দক্ষ শ্রমিকের চাহিদার কথা তুলে ধরে বলেন, দেশটিতে ভারত, নেপাল ও পাকিস্তান শ্রমিক পাঠাচ্ছে। পাকিস্তানে প্রায় ৫০ হাজার প্রকৌশলী বেকার রয়েছেন বলেও জানান তিনি।

মধ্যপ্রাচ্য নিয়ে কথা বলতে গিয়ে রানা মেহমুদুল হাসান বলেন, সৌদি আরবে প্রায় ৩০ লাখ পাকিস্তানি কাজ করছেন। সংযুক্ত আরব আমিরাতে (ইউএই) রয়েছেন ১৫ লাখ পাকিস্তানি। আর কাতারে পাকিস্তানি শ্রমিকদের সংখ্যা প্রায় দুই লাখ।