বৃহস্পতিবার,

২০ জুন ২০২৪

|

আষাঢ় ৭ ১৪৩১

XFilesBd

শিরোনাম

সাবেক আইজিপি বেনজীরের সম্পদ ক্রোকের নির্দেশ আদালতের হবিগঞ্জের কার ও ট্রাকের সংঘর্ষে নারীসহ নিহত ৫ যুদ্ধ ব্যয়ের অর্থ জলবায়ুর প্রভাব মোকাবেলায় ব্যবহার হলে বিশ্ব রক্ষা পেত: প্রধানমন্ত্রী বিএনপির বিরুদ্ধে কোনো রাজনৈতিক মামলা নেই: প্রধানমন্ত্রী প্রাণি ও মৎস্যসম্পদ উন্নয়নে বেসরকারি খাতকে এগিয়ে আসার আহ্বান প্রধানমন্ত্রীর বিএনপি নেতারা সন্ত্রাসীদের সুরক্ষা দেওয়ার অপচেষ্টা করছে : ওবায়দুল

আফগানিস্তানের বিপক্ষে শ্রীলংকার সংগ্রহ ২৪১ রান

প্রকাশিত: ০৫:৩৩, ৩১ অক্টোবর ২০২৩

আফগানিস্তানের বিপক্ষে শ্রীলংকার সংগ্রহ ২৪১ রান

ওয়ানডে বিশ্বকাপে নিজেদের ষষ্ঠ ম্যাচে কোন সেঞ্চুরি বা  হাফ-সেঞ্চুরি ছাড়াই আফগানিস্তানের বিপক্ষে প্রথমে ব্যাট করে ৪৯ দশমিক ৩ ওভারে ২৪১ রান করেছে  শ্রীলংকা। বিশ^কাপ মঞ্চে আফগানিস্তানের বিপক্ষে এটিই সর্বোচ্চ দলীয় রান লংকানদের। দলের পক্ষে সর্বোচ্চ ৪৬ রান করেন ওপেনার পাথুম নিশাঙ্কা। আফগানিস্তানের পেসার ফজলহক ফারুকি ৩৪ রানে ৪ উইকেট নেন। 

পুনেতে টস জিতে প্রথমে শ্রীলংকাকে ব্যাটিংয়ের আমন্ত্রন জানায় আফগানিস্তান। ব্যাট হাতে দলকে ভালো সূচনা এনে দিতে পারেনি শ্রীলংকার ওপেনাররা। ষষ্ঠ ওভারে আফগানিস্তান পেসার ফজলহক ফারুকির বলে লেগ বিফোর আউট হবার আগে ১৫ রান করেন দিমুথ করুনারতেœ। 
দলীয় ২২ রনে করুনারতেœ ফেরার পর দ্বিতীয় উইকেটে হাফ-সেঞ্চুরির জুটি গড়েন আরেক ওপেনার পাথুম নিশাঙ্কা ও অধিনায়ক কুশল মেন্ডিস। টানা পঞ্চম হাফ-সেঞ্চুরির সম্ভাবনা জাগিয়ে ৪৬ রানে থামেন ৫টি বাউন্ডারি মারা নিশাঙ্কা। মেন্ডিসের সাথে ৭৭ বলে ৬২ রান যোগ করে পেসার আজমতুল্লাহ ওমরাজাইর শিকার হন নিশাঙ্কা।

নিশাঙ্কার পর সাদিরা সামারাবিক্রমার সাথেও হাফ-সেঞ্চুরির জুটি গড়েন মেন্ডিস। ৫৭ বলে গড়ে ওঠা ৫০ রানের জুটি বিচ্ছিন্ন করেন স্পিনার মুজিব উর রহমান। ৩টি চারে ৩৯ রানে বিদায় নেন মেন্ডিস।  মেন্ডিসকে শিকারের পর ৩টি চারে ৩৬ রানকরা  সামারাবিক্রমাও শিকার হন মুজিবের। 
৫ রানের ব্যবধানে  দুই সেট ব্যাটারকে হারিয়ে চাপে পড়ে শ্রীলংকা। সেখান থেকে দলকে লড়াইয়ে ফেরানোর চেষ্টা করেও ব্যর্থ হন  মিডল অর্ডার ব্যাটাররা। ধনাঞ্জয়া ডি সিলভাকে ১৪ রানে স্পিনার রশিদ খান এবং চারিথ আসালঙ্কাকে ২২ রানে শিকার করেন ফারুকি। ১ রানে আউট হন দুসমন্থা চামিরা। ১৮৫ রানে সপ্তম উইকেট হারিয়ে ২শর নীচে দ্রুত গুটিয়ে যাবার শঙ্কায় পড়ে শ্রীলংকা। কিন্তু সেটি হতে দেননি ম্যাথুজ-মহেশ থিকশানা। অষ্টম উইকেটে ৪২ বলে ৪৫ রানের জুটি গড়েন তারা।

৪৭তম ওভারে থিকশানাকে শিকার করে জুটি ভাঙ্গেন ফারুকি। ৩টি চার ও ১টি ছক্কায় ৩১ বলে ২৯ রান করেন থিকশানা।  থিকশানার সাথে গুরুত্বপূর্ণ জুটি গড়া ম্যাথুজকে ৪৯তম ওভারে থামান ফারুকি। দলীয় ২৩৯ রানে মোহাম্মদ নবির দারুন ক্যাচে আউট হবার আগে ১টি করে চার-ছক্কায় ২৬ বলে ২৩ রান করেন অভিজ্ঞ ম্যাথুজ। 

শেষ পর্যন্ত ইনিংসের ৩ বল বাকী থাকতে ২৪১ রানে অলআউট হয় শ্রীলংকা। বিশ্বকাপের মঞ্চে আফগানিস্তানের বিপক্ষে এটিই সর্বোচ্চ রান লংকানদের। আফগানিস্তানের পক্ষে ফারুকি ১০ ওভারে ৩৪ রানে ৪ উইকেট নেন। ১০ ওভারে ৩৮ রানে ২ উইকেট শিকার করেন মুজিব। ১টি করে উইকেট নেন ওমরজাই ও রশিদ।