সোমবার,

২২ জুলাই ২০২৪

|

শ্রাবণ ৬ ১৪৩১

XFilesBd

শিরোনাম

হত্যাকান্ড, লুটপাট ও সন্ত্রাসী কর্মকান্ডের বিচার হবে নিজেদের রাজাকার বলতে তাদের লজ্জাও করে না : প্রধানমন্ত্রী সাবেক আইজিপি বেনজীরের সম্পদ ক্রোকের নির্দেশ আদালতের হবিগঞ্জের কার ও ট্রাকের সংঘর্ষে নারীসহ নিহত ৫ যুদ্ধ ব্যয়ের অর্থ জলবায়ুর প্রভাব মোকাবেলায় ব্যবহার হলে বিশ্ব রক্ষা পেত: প্রধানমন্ত্রী বিএনপির বিরুদ্ধে কোনো রাজনৈতিক মামলা নেই: প্রধানমন্ত্রী প্রাণি ও মৎস্যসম্পদ উন্নয়নে বেসরকারি খাতকে এগিয়ে আসার আহ্বান প্রধানমন্ত্রীর বিএনপি নেতারা সন্ত্রাসীদের সুরক্ষা দেওয়ার অপচেষ্টা করছে : ওবায়দুল

তাসাউফ ফাউন্ডেশনের উদ্যোগে পবিত্র  ঈদে মিলাদুন্নাবী’(সাঃ) উদ্‌যাপিত

প্রকাশিত: ০৫:২০, ২৯ সেপ্টেম্বর ২০২৩

আপডেট: ০৫:৫০, ২৯ সেপ্টেম্বর ২০২৩

তাসাউফ ফাউন্ডেশনের উদ্যোগে পবিত্র  ঈদে মিলাদুন্নাবী’(সাঃ) উদ্‌যাপিত

তাসাউফ ফাউন্ডেশনের উদ্যোগে  ১২ রবিউল আওয়াল ১৪৪৫ হিজরি ২৮ সেপ্টেম্বর ২০২৩ মহাখালী ডিওএইচএস এ রাওয়া ক্লাবে যথাযথ মর্যাদার সাথে ’পবিত্র ঈদে মিলাদুন্নাবী’(সাঃ)  পালন করা হয়। অনুষ্ঠানে প্রথম দিবসে ’ঈদে মিলাদুন্নাবী’(সাঃ) উপলক্ষে শান্তি সম্প্রীতি ও ইসলাম বিষয়ে একটি আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়। 

অনুষ্ঠানের আলোচ্য বিষয় ছিল  "সমকালীন বিশ্বে ঈদে মিলাদুন্নাবীঃ বাস্তবতা ও করণীয়" । অনুষ্ঠানে প্রধান আলোচক ও মূল প্রবন্ধ উপস্থাপন করেন  সৈয়দ শাহাদাত হুসাইন আল হাসানী, চেয়ারম্যান, তাসাউফ ফাউন্ডেশন। বিশেষ আলোচক হিসেবে উপস্থিত ছিলেন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ফারসি বিভাগের সহযোগী অধ্যাপক মোহাম্মদ আহসানুল হাদী। 

মূল প্রবন্ধে সৈয়দ শাহাদাত হুসাইন বলেন, মিলাদুন্নাবী সাঃ উদযাপন হচ্ছে মহানবী সাঃ এর উম্মতদের জন্য সবচেয়ে বড় তাওহীদের পরিচায়ক। মানুষ সৃষ্টির সেরা জেনেও স্রষ্টার আসনে না বসিয়ে সৃষ্টি হিসাবে সর্বোচ্চ মর্যাদা দেয়া হয়েছে।

অনুষ্ঠানে মহানবী (সাঃ) এর শানে মিলাদ মাহফিলের আয়োজন করা হয় এবং প্রায় ১০০০ এতিম ও দরিদ্রদের মাঝে খাবার বিতরণ করা হয়। তাসাউফ ফাউন্ডেশনের চেয়ারম্যান আলহাদী সৈয়দ শাহাদাত হুসাইন মিলাদ মাহফিল শেষে দেশ ও দেশবাসীর জন্য দোয়া করেন। তিনি মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার দীর্ঘায়ু ও সুস্থ্য জীবনদানের জন্য মহান রাব্বুল আলামীনের নিকট দোয়া প্রার্থনা করেন এবং তার প্রজ্ঞা ও দূরদর্শী মহা পরিকল্পনায় দেশ সমৃদ্ধির পথে এগিয়ে যাক।। অনুষ্ঠানে ঢাকা ও দেশের বিভিন্ন এলাকা থেকে বিভিন্ন পেশার এক হাজারের অধিক মানুষ নবী প্রেমে উদ্বুদ্ধ হয়ে যোগদান করেন।