বুধবার,

০৭ ডিসেম্বর ২০২২

|

অগ্রাহায়ণ ২২ ১৪২৯

XFilesBd

ব্রেকিং

বিএনপির বিশৃঙ্খলা ঠেকাতে সতর্ক থাকবে নেতাকর্মীরা: কাদের মানুষ বেশি দেখানোর জন্য পল্টনে সমাবেশ করতে চায় বিএনপি: কৃষিমন্ত্রী গাইবান্ধা-৫ আসনের উপনির্বাচন: জানুয়ারিতে ভোট; চলতি সপ্তাহেই তফসিল দেশ অস্থিতিশীল করতে চাইলে ভুল করবেন: বিএনপির উদ্দেশে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী রাস্তায় সমাবেশের অনুমতি পাবে না বিএনপি: ডিএমপি কমিশনার

৫২ ঘণ্টা পর ভাসানী বিশ্ববিদ্যালয়ের ভিসি মুক্ত

 টাঙ্গাইল প্রতিনিধি

প্রকাশিত: ১৮:৫৬, ৪ নভেম্বর ২০২২

৫২ ঘণ্টা পর ভাসানী বিশ্ববিদ্যালয়ের ভিসি মুক্ত

৫২ ঘণ্টা অবরুদ্ধ থাকার পর টাঙ্গাইলের মাওলানা ভাসানী বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের ভাইস চ্যান্সেলর (ভিসি) মো. ফরহাদ হোসেন তার কার্যালয় থেকে বের হতে পেরেছেন।

শুক্রবার (৪ নভেম্বর) দুপুরে নিজ কার্যালয় থেকে বের হয়ে মসজিদে গিয়ে জুম্মার নামাজ আদায় করেন তিনি। এসময় বিশ্ববিদ্যালয়ের একদল শিক্ষার্থী তার সঙ্গে ছিলেন।

তৃতীয় শ্রেণির ২২ কর্মচারীর চাকরি স্থায়ীকরণসহ ১৪ দফা দাবিতে ভিসিকে তার কার্যালয়ে বুধবার সকাল সোয়া ৯টার দিকে অবরুদ্ধ করেন কর্মচারীরা। তারা ভিসির কার্যালয়ের সামনে অবস্থান নিয়ে বিক্ষোভ করতে শুরু করেন।

খোঁজ নিয়ে জানা গেছে, শুক্রবার সকাল ১০ টার দিকে বিশ্ববিদ্যালয়ের দুই শতাধিক শিক্ষার্থী মিছিল নিয়ে ভিসির কার্যালয়ে যান। তারা দুর্নীতিমুক্ত বিশ্ববিদ্যালয় গড়ার পক্ষে বিভিন্ন স্লোগান দিতে থাকেন। এই মিছিল উপাচার্যের কার্যালয়ে আসার পর সেখানে অবস্থান ধর্মঘটে থাকা কর্মচারীরা চলে যান। শিক্ষার্থীরা তালা খুলে ভিসির কার্যালয়ে প্রবেশ করেন। তারা ভিসিকে বাইরে আসার অনুরোধ জানান। ওই সময় ভিসি শিক্ষার্থীদের সঙ্গে বাইরে না এলেও পরে দুপুরে ছাত্রদের সাথে গিয়ে মসজিদে নামাজ আদায় করেন।  

মিছিল নিয়ে ভিসির কার্যালয়ে যাওয়া শিক্ষার্থী নেতৃত্বদানকারী মাহমুদুল হাসান দুলাল বলেন, ‘অযৌক্তিক কিছু দাবি আদায়ের জন্য তৃতীয় শ্রেণির কর্মচারিরা ভিসি স্যারকে অবরুদ্ধ করে রাখে। এটা খুবই দুঃখজনক ঘটনা। যারা এ ঘটনা ঘটিয়েছে আমরা তাদের উপযুক্ত শাস্তি চাই।’

নামাজ শেষে প্রশাসনিক ভবনের সামনে এসে শিক্ষার্থীদের উদ্দেশ্যে ভিসি ফরহাদ হোসেন বলেন, ‘আমি গর্বিত, আমি এমন কিছু সন্তান পেয়েছি, যারা সত্য, ন্যায় এবং বাস্তবতা বুঝতে পেরেছে। তোমাদের মতো সন্তানরা থাকলে এই বিশ্ববিদ্যালয় অনেক দূর এগিয়ে যাবে। এ দেশ অনেক দূর এগিয়ে যাবে। অন্যায়ের বিরুদ্ধে যারা দাঁড়ায় তারা থাকলে দেশ জাতি এবং বিশ্ববিদ্যালয় অবশ্যই এগিয়ে যাবে।’

তৃতীয় শ্রেণির কর্মচারী সমিতির সভাপতি এসএম মাহফুজুর রহমান বলেন, ‘আমাদের কর্মবিরতি এখনও অব্যাহত আছে। দাবি আদায় না হওয়া পর্যন্ত আমাদের আন্দোলন চলবে। ভিসি কার্যালয়ের বাইরে যাওয়ায় আমরা কোনো বাঁধার সৃষ্টি করিনি। অবস্থান ধর্মঘট শুরুর পরেই ভিসিকে জানানো হয়েছিল- সকালে হাটা বা বিশেষ কোনো প্রয়োজন তিনি (ভিসি) কার্যালয়ের বাইরে যেতে পারবেন।’