শনিবার,

২৫ মে ২০২৪

|

জ্যৈষ্ঠ ১০ ১৪৩১

XFilesBd

শিরোনাম

সাবেক আইজিপি বেনজীরের সম্পদ ক্রোকের নির্দেশ আদালতের হবিগঞ্জের কার ও ট্রাকের সংঘর্ষে নারীসহ নিহত ৫ যুদ্ধ ব্যয়ের অর্থ জলবায়ুর প্রভাব মোকাবেলায় ব্যবহার হলে বিশ্ব রক্ষা পেত: প্রধানমন্ত্রী বিএনপির বিরুদ্ধে কোনো রাজনৈতিক মামলা নেই: প্রধানমন্ত্রী প্রাণি ও মৎস্যসম্পদ উন্নয়নে বেসরকারি খাতকে এগিয়ে আসার আহ্বান প্রধানমন্ত্রীর বিএনপি নেতারা সন্ত্রাসীদের সুরক্ষা দেওয়ার অপচেষ্টা করছে : ওবায়দুল

জাতিসংঘ শান্তিরক্ষায় নারীদের অংশগ্রহণকে উৎসাহিত করে

নিজস্ব প্রতিবেদক

প্রকাশিত: ১০:১৫, ২৬ জুন ২০২৩

জাতিসংঘ শান্তিরক্ষায় নারীদের অংশগ্রহণকে উৎসাহিত করে

 পররাষ্ট্র সচিব মাসুদ বিন মোমেন বলেছেন, বাংলাদেশ নারী শান্তিরক্ষীদের অমূল্য অবদানকে স্বীকৃতি দেয় এবং শান্তিরক্ষা কার্যক্রমের সব পর্যায়ে তাদের অর্থবহ অংশগ্রহণ বাড়াতে প্রতিশ্রুতিবদ্ধ।

 রাজধানীতে অনুষ্ঠিত জাতিসংঘ শান্তিরক্ষা মন্ত্রী পর্যায়ের প্রস্তুতিমূলক সভার উদ্বোধনী অধিবেশনে তিনি বলেন, জাতিসংঘের ‘ইউনিফর্মড জেন্ডার প্যারিটি কৌশল’ এর সঙ্গে সামঞ্জস্য রেখে আমরা নারী শান্তিরক্ষীদের সংখ্যা বাড়ানোর উদ্যোগ নিয়েছি।

 তিনি বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা নারীর ক্ষমতায়নে একজন বিশ্ব চ্যাম্পিয়ন এবং জাতিসংঘের বিভিন্ন শান্তিরক্ষা মিশনে নারী শান্তিরক্ষীদের সংখ্যা বৃদ্ধির প্রবল সমর্থক। তিনি আরো বলেন, সর্ব-মহিলা গঠিত পুলিশ ইউনিট (এফপিইউ) কন্টিনজেন্টগুলো ছিল সক্রিয় উৎসাহ এবং সমর্থনের প্রতিফলন।

 জাতিসংঘ শান্তিরক্ষা মিশনে একটি উচ্চপদস্থ সেনা ও পুলিশ অবদানকারী দেশ হিসেবে পররাষ্ট্র সচিব বলেন, শান্তি, নিরাপত্তা ও লিঙ্গ সমতার উন্নয়নে বাংলাদেশ জাতিসংঘের নীতি ও উদ্দেশ্যের প্রতি দৃঢ় প্রতিশ্রুতিবদ্ধ।

 সচিব বলেন, আমরা বিশ্বাস করি যে টেকসই শান্তি ও উন্নয়নের জন্য লিঙ্গ সমতা এবং নারীর ক্ষমতায়ন অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ।প্রস্তুতিমূলক সভার প্রতিপাদ্য, ‘জাতিসংঘ শান্তিরক্ষায় নারী’ বাংলাদেশের কাছে প্রিয় মূল্যবোধ ও নীতির সঙ্গে গভীরভাবে অনুরণিত বলে তিনি উল্লেখ করেন।

 তিনি বলেন, আমি জোর দিয়ে বলতে চাই, শান্তিরক্ষা মিশনে নারীদের অর্থবহ অংশগ্রহণ শুধু লিঙ্গ সমতার বিষয় নয়, শান্তিরক্ষা মিশনের কার্যকারিতা বৃদ্ধির একটি মৌলিক বিষয়। শান্তিরক্ষা কার্যক্রমে তাদের সক্রিয় সস্মৃক্ততা বাড়তি মূল্য বয়ে আনে এবং টেকসই শান্তিতে অবদান রাখে।